বাংলা জোকস পর্ব ১৪


bangla-jokes-part-14

১) বিয়েটা ও লোন নিয়ে করতাম ।

মন্টু ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে একটা গাড়ি কিনলো।
::::কিন্তু লোন পরিশোধ না করায় একদিন ব্যাংক কতৃপক্ষ এসে গাড়িটি নিয়ে যায়।
.::::মন্টু: উদাস হয়ে বসে বসে ভাবছে, আর বলছে, আগে জানলে বিয়েটা ও লোন নিয়ে করতাম ।


২) পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা

চাকরীর ইন্টারভিউ চলছে
বস : আমরা কাউকে চাকরি দেওয়ার ক্ষেত্রে মাত্র দুইটা rule ফলো করি ।
প্রার্থী : কি কি স্যার?
বস : আমাদের ২য় rule হচ্ছে পরিস্কার
প্রার্থী : কি কি স্যার?
বস : আমাদের ২য় rule হচ্ছে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা । আপনি কি এখানে আসার আগে রুমের বাইরে রাখা ম্যাট এজুতোর তলা মুছে এসেছেন?
জ্বী স্যার”
বস : আমাদের ১ম rule হলো বিশ্বাসযোগ্যতা এবং আপনার অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে বাইরে কোনম্যাট ছিলোই না !!! কাজেই আপনাকে বিশ্বাস করা যাচেছনা


৩) দোকানদার ও ভদ্র লোক

 দোকানদার ও ভদ্র লোকের মধ্যে কথোপকোথন
ভদ্র লোক: আপনার দোকানের নাম কি?
দোকানদার: দরকার কি ভদ্র
লোক: এমনি নামটা কি বলবেন
দোকানদার: বললাম তো দরকার কি
ভদ্র লোক: আপনি তো ফাযিল লোক একটা
দেকানদার: আরে ভাই চেতেন কেন আমার দোকানের নাম তো "দরকার কি"


৪) চলেন শুরু করি

পুলিশ এক জুয়ার আসরে হানা দিয়ে এক জুয়ারীকে গ্রেফতার করল । থানায় আনার পর জুয়ারী ইন্সপেক্টরকে .......
জুয়ারী : আমাকে ধরে আনা হল কেন ?
ইন্সপেক্টর : ন্যকামো হচ্ছে?? জানিস না তোকে জুয়া খেলার জন্য ধরে আনা হইছে ।
জুয়ারী : ( উল্লাসিত হয়ে ) তাহলে দেরী করছেন কেন? চলেন শুরু করি ।


৫) বল্টুর জাতীয় সঙ্গীত

বল্টুকে তার বাবা ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে ভর্তি করল । একদিন স্কুলের ইংলিশ টিচার বল্টুকে বললো........
টিচারঃ বল্টু আমাদের দেশের জাতীয় সঙ্গীত ইংলিশে গাও তো।
বল্টুঃ মাই গোল্ডবাংলা , , , , , আই লাভ ইয়ু, চিরদিনী ইয়োর ইস্কাই ইয়োর বিস্কাই, মাই প্রানে, ওমাদার মাই প্রানে বাজায় বাশি গোল্ড বাংলা আইলাভ ইয়ু, , , , ,, ও মাদার ফাগুনে তোর ম্যাঙ্গোর বনে ঘ্রানে মেন্টাল করে, মরি হায়হায়রে ও মাদার ফাগুনে তোর ম্যাঙ্গোরবনে ঘ্রানে মেন্টাল করে .......
টিচার বেহুশ . . . . . . ! ! ! !


৬) চাপা

 বল্টুঃআপনার নাম কি?
মেয়ে:আমার নাম চাপা চৌধুরী ।
বল্টুঃবাড়ী কোথায়?
মেয়েঃচাপাইনবাবগঞ্জ।
বল্টুঃআপনার প্রিয় ফুল কি?
মেয়েঃচাপা ফুল ।
বল্টুঃপ্রিয় ফল কি?
মেয়েঃচাপা কলা।
বল্টুঃপ্রিয় তরকারী?
মেয়েঃচাপা শুটকি ।
বল্টুঃঅবসর সময় কি করেন?
মেয়েঃচা–পাতার গন্ধ শুকি।
বল্টুঃপ্রিয় চলচ্চিত্র কি ?
মেয়েঃচাপা ডাঙ্গার বউ ।
বল্টুঃপ্রিয় সখ কি ?
মেয়েঃচাপা মারা।
বল্টুঃরাগেন কখন?
মেয়েঃচাপা উত্তেজনায় ।
বল্টুঃআনন্দে কি করেন ?
মেয়েঃচাপা হাসি দেই ।
বল্টুঃকষ্ট পেলে কি করেন?
মেয়েঃচাপা কান্না করি ।
বল্টুঃআপনার প্রিয় ব্যক্তিত্ব কারা?
মেয়েঃচাপাবাজরা ।
বল্টুঃআপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি?
মেয়েঃট্রাক চাপা পড়ে কেউ যেন না মরে তার ব্যবস্থা করা।
বল্টুঃ(হাতের ব্যান্ডেজ বাধা দেখে জিঙ্গেস করলাম ) ব্যাথা পেলেন কি করে ?
মেয়েঃদরজায় একটু চাপা খাইছিলাম । আরকিছু?
---বল্টু অজ্ঞান


৭) পায়ে জুতা

 ঝন্টু : দোস্ত, মেয়েদের প্রপোজ করার সবচাইতে নিরাপদ জায়গা কোনটা
মন্টু : শহীদ মিনার ।
ঝন্টু : শহীদ মিনার কেন ?
মন্টু : কারন ঐখানে কারো পায়ে জুতা থাকে না ৷


৮) মার শালাকে

 দুই ছাত্র, মারামারি করছে ....
শিক্ষকঃ এই তোরা মারামারি করছিস কেন?
১ম ছাত্রঃ স্যার, ও আমার গার্লফ্রেন্ডকে কিস করেছে ।
শিক্ষকঃ তোর গার্লফ্রেন্ডটা কে??
১ম ছাত্র: আপনার মেয়ে ।
শিক্ষক: থামলি কেনো? মার শালাকে...


৯) এখনও w,x,y,z বলি নাই

 বল্টু :- জানেন Sir আমি না A B C D মুখস্থ পারি। Sir- তাহলে একবার বলে দেখাও।
বল্টু :- A B C D E F G H I J K L M N O P Q R S T U V W X Y Z.
Sir: এভাবে না, একটা করে শব্দ সহ বল। বল্টু : - ঠিক বুঝলাম না,একটা উদাহরণ দিতে পারেন? Sir: যেমন A-তে apple
বল্টু :-A- apple ,B- বড় apple ,C- চিকুন apple, d- ডোরাকাটা apple, E- আদখাওয়া apple, F- ফাপা apple,G- গোল apple,H- হাজার apple,I- ইরাকের apple,J- জঙ্গলি apple,K- কোটি apple,M- মাঝারি apple, N- নানা apple,O- অস্থির apple,P- পাগলা apple,Q- কিছু apple,R- রোগীর apple,S- সুন্দর apple,T- টক apple,U- উরাধুরা apple,V- ভাঙ্গা apple
একি sir আপনি পরে গেলেন কেন???? ,আমি তো এখনও w,x,y,z বলি নাই.....!!!


১০) দোকানদার বেহুশ

আবুল ও তার বন্ধু.. গেছে পানের দোকানে...
আবুলঃ একটা পান দেন। .
দোকানদারঃ কি দিয়ে খাবেন ? .
আবুলঃ কেন, দাঁত দিয়ে।
দোকানদারঃ বলছি কিভাবে খাবেন ? .
আবুলঃ চিবিয়ে খাব ?
দোকানদারঃ আরে ভাই, সাথে কি খান ?
আবুলঃ সাথে আমার বন্ধু হাবলু খাঁন।
দোকানদারঃ আরে মিয়া ভাই, আপনি কি জর্দা খান ?
. আবুলঃ জ্বি না।আমি "আবুল খাঁন "!!!! দোকানদার বেহুশ


১১) স্যার আপনার পেন্টের চেইন খোলা...

 ছাত্র : স্যার একটি কথা বলবো?
স্যার : কি বলবে বলো?
ছাত্র : আমার খুব লজ্জা লাগছে
স্যার : লজ্জার কি আছে বল?
ছাত্র : আস্তে বলব না জোরে বলব স্যার?
স্যার : আরে বেটা যা বলবি জোরে বল সবাই শুনুক
ছাত্র : চিত্কার করে বলে-স্যার আপনার পেন্টের চেইন খোলা|
স্যার : হারামজাদা আস্তে ক


১২) আমি বেটা না বেটি

এক ফকির ভিক্ষা করতে গিয়ে পড়ল এক পিচ্চির সামনে....
ফকিরঃ আল্লাহর ওয়াস্তে কিছু দেও বেটা।
পিচ্চিঃ আমি বেটা না, বেটি।
ফকিরঃ আল্লাহর ওয়াস্তে কিছু দাও বেটি।
পিচ্চিঃ বেটি না, আমার নাম স্বর্ণা।
ফকিরঃ আল্লাহর ওয়াস্তে কিছু দাও স্বর্ণা।
পিচ্চিঃ আমার পুরা নাম নাদিয়া শারমিন স্বর্ণা। ভালভাবে বলেন।
ফকিরঃ আল্লাহর ওয়াস্তে কিছু দাও নাদিয়া শারমিন স্বর্ণা।
পিচ্চিঃ হ্যাঁ, এখন ঠিক আছে। মাফ করেন ।


১৩) গৃহ শিক্ষক এবং ছাত্র

গৃহশিক্ষক: গত কাল যে বলেছিলাম চারটা ইংরেজী বাক্য শিখে রাখতে, তা শিখেছ?
ছাত্র: নো স্যার।
গৃহশিক্ষক: কেন?
ছাত্র: নাউ আই অ্যাম বিজি স্যার । বিজি স্যার।
গৃহশিক্ষক: যতই ব্যাস্ত থাক তোমাকে বলতে ইহবে।
ছাত্র: ডোন্ট ডিষ্টার্বমি!
গৃহশিক্ষক: কী! এত বড় সাহস!
ছাত্র: ইউ শার্ট আপ!
গৃহশিক্ষক: বেয়াদব ছেলে! তোমাকে আমি পড়াবো না!
ছাত্র: কেন স্যার? আমি তো চারটি ইংরেজী বাক্যই বলতে পেরেছি।


১৪) ৩২ কুটি

 স্যার: আবুল দেশের বর্তমান জনসংখ্যা কতো...???
আবুল: স্যার ৩২ কুটি ।
স্যার: ওয়াট???
আবুল: জ্বি স্যার সরকারী দল বলতেছে তাদের সঙ্গে নাকি ১৬ কুটি মানুষ আছে।
আবার বিরোধী দল বলতেছে তাদের সঙ্গে ও নাকি ১৬ কুটি মানুষ আছে । তাই ৩২ কুটি বললাম.....


১৫) বল্টুর গান শেখা

গানের শিক্ষক আসছে বল্টুরে গান শিখাতে.......
শিক্ষক:- বল্টু, তুই কয়টা গান পারস ??
বল্টু:- 4 টা গান পারি ।
শিক্ষক:- দেখি কি কি গান জানস...গা একটু
বল্টু:- 1 ইয়া আলী, পকেট খালি, জানু তুই আমারে কি ভাবে ছ্যাকা দিলি??
2. ধাক ধাক কার নে লাগা, হালা রে ধইরা গালে 2 টা থাপ্পর লাগা!!
3. দিল তুহি হে বাতা, কেনো তোমার বাথরুমের বদনা ফাঁটা! ??
4. ধুম মা চালে ধুম মা চালে ধুম, কাল অবরোধ দিবো সেই লেভেলের ঘুম..!!
শিক্ষক:- বেহুশ .............


১৬) ৪টা থেকে ৬টা

বল্টু প্রতিদিন বিকেলে এসে ডাক্তারখানার সামনে দাঁড়িয়ে থাকে আর হাঁ করে তাকিয়ে মেয়ে দেখে। বেশ কিছুদিন লক্ষ্য করার পর ডাক্তারবাবু একদিন এসে বল্টু'কে জিজ্ঞেস করলো..
ডাক্তারঃ কী ব্যাপার মশাই, আপনি প্রতিদিন বিকেলে এসে আমার চেম্বারের সামনে দাঁড়িয়ে এভাবে মেয়ে দেখেন কেন? ব্যাপার কী?
বল্টুঃ আরে ডাক্তারবাবু, আপনিই তো লিখে রেখেছেন... মহিলাদের দেখার সময়ঃ বিকাল " ৪টা থেকে ৬টা "


১৭) ৫টা চাবি

এক মেয়ে এক সাধু বাবার নিকট গিয়ে তাঁকে জিজ্ঞেস করল...
মেয়েঃ আচ্ছা বাবা, মেয়েরা যদি ৫টা ছেলের সাথে প্রেম করে তাহলে তাকে খারাপ মেয়ে বলে। আর একটা ছেলে যদি ৫টা মেয়ের সাথে প্রেম করে তাহলে তাকে খারাপ ছেলে বলেনা কেন? বাবাঃ (অনেকক্ষণ ভেবে) আচ্ছা মা, ধর একটা তালা যদি অন্নের ৫টা চাবি দিয়া খুলে যায় তাহলে ঐ তালাকে কি বলে?
মেয়েঃ নষ্ট তালা বলবে।
বাবাঃ আচ্ছা...ভাল.... ,আর একটা মাত্র চাবি দিয়া যদি অন্নের ৫ট তালা সহজেই খুলে যায় তাহলে ঐ চাবিকে কি বলে?
মেয়েঃ ভাল চাবি বলে।
বাবাঃ তাহলে মেয়েরা হচ্ছে একটা তালা আর ছেলেরা হচ্ছে চাবি। এইবার লউ ঠ্যালা .......


১৮) কুলে একটা নতুন ম্যাডাম এসেছে

 স্কুল থেকে এসে ছেলে তার বাবাকে বলছেঃ
ছেলেঃ বাবা জানো আজকে আমার স্কুলে একটা নতুন ম্যাডাম এসেছে ? তিনি এত সুইট যে আমি তার প্রেমে পড়ে গেছি ?
. বাবাঃ ছিহ বাবা এসব বলেনা । ম্যাডামরা মায়ের মত. . . . . .
ছেলেঃ হা সবসময় নিজেরটাই বুঝো।


১৯) একছেলে তোতলা হওয়ার কারণে তার বিয়ে হচ্ছেনা ।

 একছেলে তোতলা হওয়ার কারণে তার বিয়ে হচ্ছেনা ।.. একদিন মেয়ে দেখতে যাওয়ার সময় ছেলের মা বলল,"বাবা ঐবাড়িতে গিয়ে তুমি কোন কথা বলবে না। একদম চুপ থাকবে। ঠিকআছে?
ছেলে :- থিথ আতে মা।. ....মেয়ে দেখার সময় মেয়ে চা নিয়ে আসলো।
ছেলে :-(চা মুখে দিতেই চিৎকার দিয়ে বলল)গলম! গলম!.......
মেয়ে :- আলে ফুতমালো! ফুত মালো! হাহাহাহাহা এইবার মনে হয় বেচারার বিয়ে হইয়া যাইবো।


২০) পেতনির মত লাগছে আরতা দেখে ছেলে ভয় পেয়ে পালাইল.

বল্টু তার গার্ল ফ্রেন্ডের সাথে ঘুরতে গেলো .....হঠাৎ অনেক বৃষ্টি শুরু হল..... ভাবুন মুষলধারে বৃষ্টি, ছেলে মেয়ে একা...কি হতে পারে?? ভাবেন---বুঝতে পারছেন না?""মেয়ের মেকআপ ধুয়ে গেলো মাইয়ারে পুরাই পেতনির মত লাগছে আরতা দেখে ছেলে ভয় পেয়ে পালাইল.

Post a Comment

0 Comments